মানসিক প্রতিবন্ধী যুবককে ৮ মাস পর ফেইসবুকে খুঁজে পেলো পরিবার

নিখোঁজ হবার ৮ মাস পর ফেইসবুকে পোস্ট দেখে সাইদুর রহমান সোহান (২৭) নামের এক মানসিক প্রতিবন্ধীকে খুঁজে পেয়েছে তার পরিবার। কুমিল্লার কাপ্তান বাজারের বাড়ি থেকে গত বছরের ডিসেম্বর মাসে হারিয়ে যান সোহান। পরে তিনি ঘুরতে ঘুরতে বান্দরবান শহরে এসে পৌঁছান।

করোনা দুর্যোগে হোটেল-রেস্তোরাঁ বন্ধ হয়ে গেলে বান্দরবান শহরে মানসিক প্রতিবন্ধীদের জন্যে প্রতিদিন খাবারের আয়োজন করে আসছিলেন কয়েকজন স্বেচ্ছাসেবক। তাদের সেই খাবার বিতরণের পোস্টের ছবি দেখেই হারিয়ে যাওয়া সোহানকে সনাক্ত করে স্বজনরা।

বান্দরবানের স্বেচ্ছাসেবক গ্রুপটির অন্যতম সদস্য শিমুল দাশ জানান, সোহানের পরিবারের লোকজন বান্দরবানের রেইছার এক ব্যবসায়ী জাহাঙ্গীর আলমের পরিচিত। সোহানের হারিয়ে যাবার খবর তাকে জানানো হয়েছিল। জাহাঙ্গীর বান্দরবান শহরে মানসিক প্রতিবন্ধীদের খাবার বিতরণের ছবিতে সোহান রয়েছে বলে ধারনা করেন। তারপর তিনি তার পরিবারের কাছে সোহানের হারিয়ে যাবার আগের ছবি চান।

বান্দরবান শহরে এভাবেই ঘুরে বেড়াতেন সোহান।

আগের ছবির সাথে বর্তমানে বান্দরবানে খাবার বিতরণের সময়কার ছবি মিলিয়ে দেখে তিনি নিশ্চিত হন সোহান বান্দরবানেই রয়েছেন। তারপর তার পরিবারকে খবর দেওয়া হয়।

খবর পেয়ে ১৬ জুলাই বৃহষ্পতিবার সকালে সোহানের ভাই মাসুদুর রহমান ইকরাম এবং এক চাচা মাইক্রোবাসযোগে বান্দরবান আসেন।
এ সময় স্বেচ্ছাসেবক শিমুল এবং তার দলের সদস্যরা বান্দরবান শহরের কালাঘাটা বড়ুয়ার টেক থেকে সোহানকে নিয়ে সদর থানার সামনে স্বজনদের কাছে বুঝিয়ে দেন।

শিমুল জানান, সোহানকে ফিরিয়ে নিতে আসা লোকজন তার পরিবারের সদস্য কীনা তা যাচাই করা হয়েছে। তারা সোহানের হারিয়ে যাবার ব্যাপারে ২০১৯ সালের ১৬ ডিসেম্বর কুমিল্লার কোতয়ালী মডেল থানায় একটি জিডি করেছিলেন। সেই জিডির কপি আমরা দেখেছি। ফিরিয়ে নেবার সময় বান্দরবান সদর থানায়ও একটি জিডি করা হয়েছে। বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে তারা সোহানকে নিয়ে কুমিল্লার উদ্দেশ্যে রওনা হয়েছেন।

প্রসঙ্গত, বান্দরবান শহরে সমাজকর্মী রাজেশ দাশের নেতৃত্বে ১৬ জুলাই পর্যন্ত ১০৭ দিন ধরে মানসিক প্রতিবন্ধীদের খাবার সরবরাহ করে আসছেন একদল স্বেচ্ছাসেবক। তারা প্রতিদিন প্রায় ২ হাজার ৫শ’ টাকা খরচ করে ৩০ জনের খাবার তৈরি করেন।

শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য