কবিদের হাতের লেখায় মেলায় এসেছে ‘হস্তাক্ষরে কবিতা’

হস্তাক্ষরে কবিতা: সম্পাদক- পলাশ পুরকায়স্থ

‘কবিদের লেখা কবিতা যদি ছাপার অক্ষরে না হয়ে তাঁদের নিজ হাতের লেখায় আসে, কেমন হবে? আর এই ভাবনাটাই আমার মনে গেঁথে গেল৷ রোদ্দুর গ্রুপের একজন নিয়মিত সদস্য হিসেবে সেখানে একটা ইভেন্টের আয়োজন করেছিলাম৷ নিজ হস্তাক্ষর-নিজস্ব কবিতা।

এখানে কবিদের নিজ হাতের লেখা দেখে আমি হতবাক! মানুষের লেখা এত সুন্দর হতে পারে! আমার মাথার ভেতরে ব্যাপারটা ঘুরতে শুরু করল৷ দু’একজনের সাথে আইডিয়াটা শেয়ার করলাম৷

এর মধ্যে কবি ও লেখক মেহেদী হাসান তামিম, কবি ও গদ্যকার ডাঃ ফারহানা নীলাসহ অনেকের সাথে কথা বললাম৷ আর কথা বললাম পেন্ডুলামের প্রকাশক রুম্মানের সাথে৷ সে সাহস দিল৷ বলল দাদা করে ফেলেন৷ মনের তাগিদটাই আসল৷ আর এভাবেই হয়ে গেল হস্তাক্ষরে কবিতা৷’

এভাবেই লেখকদের নিজেদের হস্তাক্ষরে ছাপা হওয়া কবিতা সংকলন ‘হস্তাক্ষরে কবিতা’র কথা জানালেন সম্পাদক পলাশ পুরকায়স্থ।

বইটি গ্রন্থমেলায় পেন্ডুলাম প্রকাশনীর ২৭১ নম্বর স্টলে পাওয়া যাচ্ছে। এর প্রচ্ছদ করেছেন ধ্রুব এষ।

সংকলনটিতে যুগল কবিতা লিখেছেন শাবানা ইসলাম বন্যা এবং সাইফুল ইসলাম চয়ন, একক কবিতা রয়েছে মেহেদী হাসান তামীম, মুনিরুল ইসলাম চঞ্চল, নীল হালদার, পলাশ বোস, সঞ্জয় মুখার্জ্জী, আফজালুর রহমান কল্লোল, জেরিন মোসফেকা, সুরভী হাসনীন, কানিজ সাপি, রুহু রুহেল ও ভাই-বোন ফারহানা নীলা ও ফাহিমুল ইসলাম, লিমি চৌধুরী, পলাশ পুরকায়স্থ, নুসরাত নাহিদ ও বিকাশ মজুমদার-এর। প্রকাশক রুম্মান তার্শফিক।

শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য