৫০ যাত্রী নিয়ে নিখোঁজ ইন্দোনেশিয়ার বিমান

পঞ্চাশ জনেরও বেশি যাত্রী নিয়ে আকাশে ওড়ার পর ইন্দোনেশিয়ার একটি যাত্রীবাহী বিমান নিখোঁজ হয়েছে। শ্রীভিজায়া এয়ারের বোয়িংটি রাজধানী জাকার্তার বিমান বন্দর ত্যাগের পরই বিমানের সাথে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে যায় বলে কর্মকর্তারা জানাচ্ছেন। তারা বলছেন, বিমানটি পশ্চিম কালিমান্তান প্রদেশের পন্টিয়ানাক বিমানবন্দরের উদ্দেশ্যে যাত্রা শুরু করেছিল। সোশাল মিডিয়ায় কিছু ছবি এবং ভিডিও শেয়ার করা হয়েছে যেগুলো দেখে নিখোঁজ ঐ বিমানের ধ্বংসাবশেষ বলে মনে হচ্ছে।

রেজিস্ট্রেশন তথ্য অনুযায়ী, বিমানটি ২৭ বছর পুরোনো একটি বোয়িং ৭৩৭-৫০০। ফ্লাইট ট্র্যাকার ওয়েবসাইট ফ্লাইটরেডারটুয়েনটিফোরডটকম জানাচ্ছে, বিমানটির উচ্চতা এক মিনিটের মধ্যে ৩,০০০ মিটার (১০,০০০ ফুট) পড়ে গিয়েছিল

ইন্দোনেশিয়ার পরিবহণ মন্ত্রণালয় জানাচ্ছে, নিখোঁজ বিমানটির জন্য তল্লাশি শুরু হয়েছে। শ্রীভিজয়া এয়ার স্থানীয় বিমান অপারেটার। তারা বলছে, ঐ ফ্লাইট সম্পর্কে তারা এখনও তথ্য জোগাড় করছে। তবে এই ফ্লাইটটি বোয়িং ৭৩৭ ম্যাক্স নয় যেটি সাম্প্রতিক বছরগুলিতে দুটি বড় ধরনের দুর্ঘটনায় পড়েছে।

এর মধ্যে প্রথমটি ঘটে ইন্দোনেশিয়ায় ২০১৮ সালের অক্টোবর মাসে। স্থানীয় বিমান সংস্থা লায়ন এয়ারের ফ্লাইটটি ১৮৯ জন যাত্রী নিয়ে সাগরে বিধ্বস্ত হয়।

শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য