৩শ’ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে পাহাড়ে শুরু হচ্ছে ‘বঙ্গবন্ধু ট্যুর ডি সিএইচটি’

রাঙ্গামাটির সাজেক থেকে বান্দরবানের থানছি। পাহাড়ি আঁকাবাঁকা এই যাত্রা প্রায় ৩০০ কিলোমিটার। ২৮ ডিসেম্বর সোমবার থেকে দেশের বাছাইকৃত ১০০ সাইক্লিস্ট অংশ নেবেন বঙ্গবন্ধু ট্যুর ডি সিএইচটি এমটিবি চ্যালেঞ্জে। সাজেক থেকে এই প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করবেন তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এমপি।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে এই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। প্রতিযোগিতায় সার্বিক সহযোগিতা করছে পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড ও বাংলাদেশ অ্যাডভেঞ্চার ফাউন্ডেশন।

ইতিমধ্যে শেষ হয়েছে রেজিস্ট্রেশন কার্যক্রম। সেখান থেকে যাচাই বাছাইয়ের মাধ্যমে মোট ১০০ প্রতিযোগী নির্বাচন করা হয়। নির্বাচিতরা ২৮ ডিসেম্বর সাজেক থেকে ৩দিনে প্রায় ৩০০ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করবেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা যায়, প্রথম ধাপে প্রতিযোগীরা ২৮ ডিসেম্বর সাজেক থেকে রাঙ্গামাটি পর্যন্ত ১৩০ কিলোমিটার সড়কপথ অতিক্রম করবেন। দ্বিতীয় ধাপে রাঙ্গামাটি থেকে বান্দরবান পর্যন্ত ৯০ কিলোমিটার এবং শেষ দিন ৩০ ডিসেম্বর বান্দরবান থেকে থানচি পর্যন্ত ৮০ কিলোমিটার অতিক্রম করার মধ্য দিয়ে শেষ হবে প্রতিযোগিতা।

প্রতিযোগিতায় পুরস্কার হিসেবে চ্যাম্পিয়নকে ৩ লক্ষ টাকা, প্রথম রানারআপকে ২ লক্ষ টাকা, দ্বিতীয় রানারআপকে ১ লক্ষ টাকা এবং বিশেষ পুরস্কার হিসেবে ১ লক্ষ টাকা প্রদান করা হবে। এছাড়ও অংশ নেয়া প্রতিযোগীদের সনদপত্র ও মেডেল প্রদান করা হবে।

পার্বত্য চট্টগ্রাম উন্নয়ন বোর্ড এবং বাংলাদেশ অ্যাডভেঞ্চার ফাউন্ডেশনের প্রেসিডেন্ট নব বিক্রম কিশোর ত্রিপুরা জানান, এবারের আয়োজন আমরা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে উৎসর্গ করেছি। মূলতঃ বাংলাদেশের ক্রীড়া পর্যটনশিল্পের উন্নয়নে ও মাউন্টেন বেইজড অ্যাডভেঞ্চার কার্যক্রম উদ্বুদ্ধ করতে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন। স্থানীয় ও জাতীয় মিলে ১০০ প্রতিযোগী এতে অংশ নেবেন। যথেষ্ট স্বাস্থ্যবিধি মেনে এই প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য, ২০১৮ সাল থেকে এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করে আসছে বাংলাদেশ অ্যাডভেঞ্চার ফাউন্ডেশন।

শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য