সকালে খালি পেটে যে কাজগুলো ডেকে আনতে পারে বিপদ

করোনা আবহে অনেকের জীবন বদলে গেছে। জীবন এখন অন্যরকম। এসময় রুটিনমাফিক জীবন যাপন ফিরিয়ে আনতে পারে ছন্দ। রোজকার রুটিন কাজগুলোর ক্ষেত্রে হেরফের হলে শারীরবৃত্তীয় বিষয়গুলি পুরোপুরি ওলটপালট হয়ে যায়। তাই চেষ্টা করুন নির্দিষ্ট সময়ে ঘুম থেকে উঠতে। সকাল সকাল ঘুম থেকে ওঠার চেষ্টা করুন। কারণ এই সময়ে কসমিক এনার্জির পজিটিভনেস অত্যন্ত বেশি থাকে।

সকালে ঘুম থেকে উঠে কিছু কাজ খালি পেটে একদমই করতে নেই। চলুন চোখ বুলিয়ে নেওয়া যাক যেসব ব্যাপার এড়িয়ে চললে ইতিবাচক ভাবে দিন শুরু করা যাবে।

১. ব্যথা কমানোর ওষুধ: খালি পেটে কোনো পেইন কিলার খেতে নেই। উপযুক্ত খাবার খাওয়ার সুযোগ না থাকলেও অন্তত দুটো বিস্কুট বা শুকনো মুড়ি খেতে পারেন। অ্যাসপিরিন, প্যারাসিটামল বা অন্য কোন অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি ওষুধ খালি পেটে খাওয়া খুবই ক্ষতিকারক। এতে গ্যাস্ট্রিক ব্লিডিং-সহ আরও বিভিন্ন ধরনের শারীরিক সমস্যা হতে পারে।

২. চুয়িং গাম: খালি পেটে চুয়িং গাম খাওয়ার অভ্যাস থাকলে এখনই এই অভ্যাস পরিবর্তন করুন। আপনি অজান্তেই ডেকে আনছেন বিপদ। এর থেকে ডাইজেস্টিভ অ্যাসিড তৈরি হয় এবং খালি পেটে এটি খেলে গ্যাস্ট্রিকের সম্ভাবনা অনেকটাই বেড়ে যায়।

৩. শোয়া থেকে সরাসরি ওঠা: ঘুম থেকে উঠে কিছুক্ষণ সোজা করে হাত টানটান করে শুয়ে থাকুন, এরপর উঠে বসুন।

৪. কড়া কফি বা চা পানে বিরত থাকুন: ঘুম থেকে উঠে কখনই কড়া কফি বা চা খাবেন না ৷ খালি পেটে এই জিনিস আপনার শরীর পুষ্টিগুণ থেকে বঞ্চিত করে ৷ খালি পেটে প্রথমেই খান এক গ্লাস জল৷ ঘুম থেকে উঠে দীর্ঘক্ষণ খালি পেটে থাকবেন না ৷ বিশেষত বাড়ির মহিলারা খালি পেটে সব কাজ শুরু করে দেন ৷ এটা কখনই করবেন না ৷ আগে পুষ্টিকর কিছু খাবার খেয়ে নিয়ে যার যার রোজকার কাজে লাগতে হবে ৷

৫. মদ্যপান: খালি পেটে একদমই মদ্যপান করতে নেই। এর ফলে শরীরে ক্ষতির পরিমাণ অনেকাংশে বেড়ে যায়। কিডনি, লিভার, হার্টের রোগে দ্রুত আক্রান্ত হওয়ার সম্ভবনা থাকে। এছাড়াও অ্যাসিডিটি, বদ হজমের সমস্যাতেও ভুগতে পারেন।

৬. ভিটামিন সি জাতীয় ফল: খালি পেঠে ভিটামিন সি জাতীয় ফল বা ফলের রস খাওয়া থেকে বিরত থাকুন। এর ফলে মজুত সাইট্রিক অ্যাসিড পেটে গ্যাস তৈরি করে।

৭. ওয়ার্কআউট: অনেকের‌ ধারণা থাকে খালি পেটে ব্যায়াম করলে হয়তো বেশি ক্যালরি ঝড়বে। তবে সেটি সম্পূর্ণ ভুল। উল্টে এতে শরীরের শক্তি কমে গিয়ে ঠিকভাবে ব্যায়ামও করা যায় না। পর্যাপ্ত পরিমাণ খাওয়ার খেয়ে একটু বিরতির পর ব্যায়াম করাটাই ভালো হবে।

শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য